নিজস্ব সংবাদদাতা,নদীয়া, ১৭ ই মে :ভোট পরবর্তী হিংসা অব্যাহত নদীয়ায়।এবার রাজনৈতিক সংঘর্ষে এক বিজেপি কর্মীর মৃত্যুর ঘটনায় উত্তপ্ত হয়ে উঠলো ভীমপুর।মৃত বিজেপি কর্মীর নাম হারাধন মৃধা(58)।ঘটনায় তৃণমূলের দিকে অভিযোগের আঙ্গুল তুলে ইতিমধ্যেই 7 জন তৃনমূল কর্মীর বিরুদ্ধে ভিমপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে বিজেপি।সূত্রের খবর,নদীয়ার ভিমপুর থানার চাপড়া ব্লকের এলাঙ্গীর বাসিন্দা বিজেপি কর্মী হারাধন মৃধাকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায় কয়েক জন যুবক।

অভিযোগ,তৃণমূল এর কর্মী ওই যুবকেরা হারাধন বাবুকে তুলে নিয়েগিয়ে ব্যাপক মারধর করে।পরে খবর পেয়ে ভিমপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে হারাধন বাবুকে উদ্ধার করে কৃষ্ণনগর জেলা হাসপাতালে ভর্তি করে।বৃহস্পতিবার রাতে সেখানেই মৃত্যু হয় হারাধন বাবুর।বিজেপির অভিযোগ,পঞ্চায়েত ভোটের সময় থেকেই চাপড়া ব্লকের বিভিন্ন জায়গায় তৃণমূলের তরফে বিজেপি কর্মীদের ওপর হামলা চালাচ্ছে।লোকসভা নির্বাচনের সময় ও পরেও বিভিন্ন জায়গায় বিজেপি কর্মীদের ওপর হামলা চালাচ্ছে তৃণমূল।

আর এবার বিজেপি করার অপরাধে হারাধন মৃধাকে তৃণমূলীদের হাতে মৃত্যু বরণ করতে হল।শুক্রবার এই ঘটনার জেরে ব্যাপক উত্তেজনার সৃষ্টি হয় ভিমপুর এলাকায়।অবিলম্বে অভিযুক্ত তৃণমূল কর্মীদের গ্রেফতারের দাবিতে থানার সামনে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি।যদিও ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগঅস্বীকার করেছে তৃণমূল।ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ভিমপুর থানার পুলিশ।