বন্যাপীড়িতদের জন্য ৫০০ ঘর নির্মাণের ঘোষণা নানা পাটেকরের

বন্যাপীড়িতদের জন্য ৫০০ ঘর নির্মাণের ঘোষণা নানা পাটেকরের

মুম্বই: বন্যায় বিধ্বস্ত পশ্চিম মহারাষ্ট্র নিজেদের অস্তিত্ব সঙ্কটে যখন ভুগছে তখন বন্যাপীড়িতদের থাকার জন্য বলিউড অভিনেতা নানা পাটেকর ৫০০ বাড়ি তৈরির কথা ঘোষণা করলেন৷ লাগাতার বৃষ্টিতে কার্যত দিন দিন অবস্থা আরও শোচনীয় হয়ে উঠছে৷ পীড়িতদের পাশে এসে দাঁড়ালেন নানা পাটেকর৷

প্রবল স্রোতকে উপেক্ষা করে অ্যাম্বুলেন্সকে পথ দেখিয়ে হিরো ১২ বছরের খুদে

প্রবল স্রোতকে উপেক্ষা করে অ্যাম্বুলেন্সকে পথ দেখিয়ে হিরো ১২ বছরের খুদে

কর্ণাটক : বয়স মাত্র ১২ বছর হলেও সাহস ও মানুষকে সাহায্য করার ইচ্ছার কাছে বয়স সংখ্যা মাত্র।সাহসিকতার নজির সৃষ্টি করে কর্ণাটকের রাইচুরের ছোট্ট গ্রামের ছেলে আজ সবার কাছে হিরো।
লাগাতার বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত কর্ণাটকের রাইচুর জেলার গ্রাম হীরেরায়ানাকুম্পি।পাশের গ্রামে যাওয়ার সেতু তলিয়ে গিয়েছে নদীর জলে। ফলে হাসপাতালে যাওয়ার সময়ে নদীর সামনে এসে থমকে গিয়েছিল একটি অ্যাম্বুলেন্স। ভিতরে তখন ছয় জন অসুস্থ শিশু। জলের তলায় কোন জায়গায় ব্রিজ, তা বুঝতে পারছিলেন না অ্যাম্বুলেন্সের চালক।

সেলিব্রিটি ইমেজ ঝেড়ে সাধারণ সেনাকর্মীর মতোই কাটল ধোনির স্বাধীনতা উদযাপনের দিন

সেলিব্রিটি ইমেজ ঝেড়ে সাধারণ সেনাকর্মীর মতোই কাটল ধোনির স্বাধীনতা উদযাপনের দিন

কথা রাখলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। লাদাখে সেনার পোশাকে উদযাপন করলেন ৭৩তম স্বাধীনতা দিবস। সেলিব্রিটি ইমেজ ঝেড়ে ফেলে আর পাঁচজন সাধারণ সেনাকর্মীর মতোই কাটল ধোনির স্বাধীনতা উদযাপনের দিন। দিনভর কাটালেন জওয়ানদের সঙ্গে।বুধবারই লাদাখ পৌঁছে গিয়েছিলেন ভারতীয় সেনার টেরিটোরিয়াল আর্মির সাম্মানিক লেফটেন্যান্ট কর্নেল।

লাদাখের সেনা হাসপাতালে অসুস্থ জওয়ানদের দেখতেও যান টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন অধিনায়ক। সেখানে অসুস্থ বা আহত জওয়ান এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন মাহি। তারপর সেনার হেডকোয়ার্টারে গিয়ে সময় কাটান অন্য জওয়ানদের সঙ্গে।

জল্পনার অবসান । BJP-তে যোগ দিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখি বন্দ্যোপাধ্যায়

জল্পনার অবসান । BJP-তে যোগ দিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখি বন্দ্যোপাধ্যায়

নিজস্ব সংবাদদাতা,দিল্লি,১৪ই আগস্ট :জল্পনার অবসান । BJP-তে যোগ দিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখি বন্দ্যোপাধ্যায় । আজ দিল্লিতে BJP-র সদর দপ্তরে তাঁরা যোগ দেন ।সম্প্রতি সাংবাদিক বৈঠক ডেকে অধ্যক্ষ পদ থেকে পদত্যাগের কথা ঘোষণা করেন বৈশাখি বন্দ্যোপাধ্যায় । দেখা করেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গেও । কিন্তু, পার্থবাবু তাঁর পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেননি । শোভনের মতিগতি বুঝতে আসরে নামেন অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় । স্ট্যান্ডিং কমিটির বৈঠকে উপস্থিত থাকার কথা বলেন । যদিও গতকালই স্ট্যান্ডিং কমিটি থেকে ইস্তফা দেন শোভন ।আজ বিকেলেই করেন যোগদান । যোগদান পর্ব মুকুল রায় সাংবাদিক বৈঠকে বলেন, “শোভন দলে আসায় BJP-র শক্তি বাড়ল । শোভন-বৈশাখি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সব কা সাথ সব কা বিশ্বাসে আকৃষ্ট হয়েছেন । তৃণমূলের ক্ষমতায় আসার পিছনে শোভনের ভূমিকা ছিল ।

সাত বছরের শিশুর মাড়ি কেটে বেরল ৫২৬টি দাঁত! দেখে তাজ্জব দন্ত চিকিৎসকরাও

সাত বছরের শিশুর মাড়ি কেটে বেরল ৫২৬টি দাঁত! দেখে তাজ্জব দন্ত চিকিৎসকরাও

চেন্নাই : সাত বছরের শিশুর মাড়ি কেটে বেরল ৫২৬টি দাঁত! দেখে তাজ্জব বনে গেলেন দন্ত চিকিৎসকরাও। ঘটনাটি ঘটেছে চেন্নাইয়ের সবিতা ডেন্টাল কলেজে। দীর্ঘদিন ধরেই দাঁতের ব্যথায় কষ্ট পাচ্ছিল।শেষমেশ সবিতা ডেন্টাল কলেজে যান বাবা-মা। এক্স-রে করার পর তার রিপোর্ট দেখে তাজ্জব বনে গিয়েছেন দন্ত চিকিৎসকরাও।

শিশুটির ডান দিকের নীচের মাড়িতে একটি থলির মতো অংশে গিজগিজ করছে দাঁত! এর পরই ওই শিশুর মাড়িতে অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসকরা।

দিল্লিগামী  বিমানে প্রসেনজিৎ-মুকুল সাক্ষাৎ,উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল সাংসদ মিমিও

দিল্লিগামী বিমানে প্রসেনজিৎ-মুকুল সাক্ষাৎ,উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল সাংসদ মিমিও

সম্প্রতি দিল্লি যাওয়ার পথে বিমানে মুকুল রায় এবং প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের দেখা হয়েছিল। তাদের মধ্যে কথাও হয়েছে। আর সেখান থেকেই জোর জল্পনা প্রসেনজিৎ বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন। তবে সেদিন কিন্তু এই ঘটনার সাক্ষী ছিলেন আরও একজন। তিনি মিমি চক্রবর্তী। দিল্লিগামী বিমানে ঠিক কী ঘটেছিল সেদিন? বললেন মিমি। মিমি জানান, সেই বিমানে সেদিন তিনি এবং তাঁর ম্যানেজারও ছিলেন। গোটা ঘটনাটা তিনি চাক্ষুষ করেছেন। আর ৫ জনের মতোই প্রসেনজিৎ কথা বলেছিলেন মুকুলের সঙ্গে।

এমনকী, মিমি নিজেও গিয়ে কথা বলেছিলেনব মুকুল রায়ের সঙ্গে। পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম সেরেছেন।
মিমির কথায়, “গুরুজনদের থেকে আশীর্বাদ নেওয়ার এই রীতি তাঁর মা-বাবার থেকেই শেখা। সিনেমার সঙ্গে রাজনীতির কোনও যোগ নেই। আমি অবশ্যই একজন সাংসদ। কিন্তু যখন আমি অভিনেত্রী তখন শুধুমাত্রই একজন শিল্পী। যার সঙ্গে রাজনীতির রঙের কোনও মিল নেই।”