তৃণমূল কর্মী দের জোর করে জয় শ্রীরাম বলতে বাধ্য করায় দুপক্ষের সংঘর্ষ

তৃণমূল কর্মী দের জোর করে জয় শ্রীরাম বলতে বাধ্য করায় দুপক্ষের সংঘর্ষ

নিজস্ব সংবাদদাতা,দেগঙ্গা , ২৫ শে মে : এলাকার বুথে ৪২ ভোটে লিড পেয়েছে বিজেপি আর সেই আনন্দে এলাকার তৃণমূল কর্মী দের জোর করে জয় শ্রীরাম বলতে বাধ্য করায় দুপক্ষের সংঘর্ষ।আহত কমবেশি ১২ জন,মাথায়, হাতে আঘাত লেগে গুরুতর জখম তৃণমূল সমর্থকরা।পাল্টা বিজেপি সমর্থদের ঘড়বাড়ি ভাঙচুর,মারধোর।ঘটনায় উত্তপ্ত দেগঙ্গার হাদিপুর-ঝিকড়া(১)পঞ্চায়েতের ১২৯ নম্বর বুথের ঝিকড়া কলোনি পাড়ায়।এলাকায় জারি ১৪৪ ধারা।ঘটনাস্থলে কেন্দ্রীয় বাহিনী ও দেগঙ্গা থানার পুলিশ।গতকাল রাতভোর দুপক্ষের সংঘর্ষে একে অপরের দিকে তুলছে অভিযোগের আঙ্গুল।ভয়তে এলাকা ছাড়া বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মী।গোটা এলাকা থমথমে।

বিজেপির এজেন্ট কে ধারালো অস্ত্রের কোপ

বিজেপির এজেন্ট কে ধারালো অস্ত্রের কোপ

নিজস্ব সংবাদদাতা,নরেন্দ্রপুর , ২৫ শে মে : সপ্তম দফা লোকসভা ভোট পরবর্তী রেজাল্ট বেরুলে অনেকটা অংশ গেরুয়া দখলে তাই, শাসক দল বিজেপির কর্মীদের বাড়ি লক্ষ্য করে বোমাবাজির করছে বলে অভিযোগ। আজ সকালে বিজেপি এজেন্টকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মারার অভিযোগের তীর তৃণমুল কংগ্রেসের দিকে। ঘটনাটি ঘটেছে নরেন্দ্রপুর থানার অন্তর্গত জগদীশপুর এলাকায়। বিজেপি কর্মীদের বাড়িতে বোমাবাজি এছাড়া বিজেপির পতাকা ফেস্টুন ছিঁড়ে পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ শাসক দলের বিরুদ্ধে। এমন কি শ্রীকান্ত নস্কর নামে এক বিজেপি এজেন্ট ধারালো অস্ত্রের কোপ মারে শাসকদলের দুষ্কৃতীরা বলে অভিযোগ। তবে শাসক দল জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছেন স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা ও জেলা পরিষদের সদস্য রঞ্জন বৈদ্য। তার বক্তব্য বিজেপিতে থাকা সিপিএমের দুষ্কৃতকারীরা এই কাজ করেছে। ঘটনায় পুলিশে অভিযোগ দায়ের। তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

এক যুবকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার

এক যুবকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার

নিজস্ব সংবাদদাতা,কাঁকসা, ২৫ শে মে : কাঁকসার আড়া এলাকা থেকে এক যুবকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার । মৃত ওই যুবকের নাম চিরঞ্জিত গোপ (২৩)। এলাকার একটি পুকুর পাড়ে ভোরবেলায় ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায় স্থানীয় বাসিন্দারা। কাঁকসা থানায় খবর দেওয়া হলে মলানদীঘি থানার পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠায়। পরিবার সূত্রে জানা যায় দীর্ঘ দিন ধরে পারিবারিক অশান্তির জেরেই ভোররাতে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায় সে পরে সকালে তার মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়।

দশম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে ধৃত এক ব্যক্তি

দশম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে ধৃত এক ব্যক্তি


নিজস্ব সংবাদদাতা,হাবড়া, ২৫ শে মে : দশম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে ধৃত আশিস দাস নামে বছর পঁয়ত্রিশের এক ব্যক্তি ।হাবড়ার ডহরথুবা এলাকার ঘটনা । পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে চলতি মাসের ৮ তারিখ ছাত্রীর বাবা-মা কাজে বেরিয়ে যাওয়ায় একাই বাড়িতে ছিল ওই ছাত্রী তখন প্রতিবেশী আশিস বাড়িতে ঢুকে তাকে যৌন নির্যাতন করে । এবং কাউকে সে খবর জানালে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয় । গোটা ঘটনায় আতঙ্কে ছিল মেয়েটির পরিবার । অবশেষে 18-5 -2019 হাবড়া থানায় অভিযুক্ত যুবকের নামে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে ওই ছাত্রীর পরিবার । অভিযোগের ভিত্তিতে শুক্রবার রাতে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ ।তার বিরুদ্ধে পকসো আইনে মামলা রুজু করে শনিবার তোলা হচ্ছে বারাসাত আদালতে ।

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় যুবতীকে ছুরি দিয়ে কুপিয়ে খুনের চেষ্টা

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় যুবতীকে ছুরি দিয়ে কুপিয়ে খুনের চেষ্টা

নিজস্ব সংবাদদাতা,নদীয়া, ২৫ শে মে : প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় যুবতীকে ছুরি দিয়ে কুপিয়ে খুনের চেষ্টা করলো এক যুবক।শুক্রবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে নদীয়ার রানাঘাটে।ঘটনায় মেয়েকে বাঁচাতে গিয়ে ছুরির আঘাতে গুরুতর হয়েছেন ওই যুবতীর মাও।মা ও মেয়ে দুই জনকেই রানাঘাট মহকুমা হাসপাতালে ভর্তী করা হয়েছে।সূত্রের খবর,নদীয়ার রানাঘাট থানার নোকারীর বাসিন্দা ওই যুবতীকে দীর্ঘ কয়েক মাস যাবত প্রেমের প্রস্তাব দিচ্ছিল পূর্ন চন্দ্র দাস নামের এক যুবক।অভিযোগ,সেই প্রেমের প্রস্তাব মেনে নেয়নি ওই যুবতী।অভিযোগ,সম্প্রতি ওই যুবতীর অন্যত্র বিয়ে ঠিক হওয়ার কথা জানতে পারে পূর্ণচন্দ্র নামর ওই যুবক।

অভিযোগ,এর পরই শুক্রবার রাতে যখন ওই যুবতী তার মায়ের সাথে বাজার থেকে বাড়ী ফিরছিল,তখন পূর্ণচন্দ্র নামের ওই যুবক ওই যুবতীর ওপর ধারালো ছুরি নিয়ে হামলা চালায়।মেয়েকে বাঁচাতে এসে গুরুতর জখম হন যুবতীর মাও।পরে তাদের চিৎকারে স্থানীয় মানুষজন ছুটে এসে ওই যুবকের হাত থেকে মা ও মেয়েকে উদ্ধার করে রানাঘাট মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করে।এই ঘটনার পর স্থানীয় মানুষজন অভিযুক্ত যুবককে মারধর করে রানাঘাট থানার পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে।ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে রানাঘাট থানার পুলিশ।