রিপোর্টে ভরসা নেই, অশান্তির খবর নিতে গ্রাউন্ড জিরো-তে যেতে চান রাজ্যপাল,

'দুর্গারত্ন' পুরস্কার ঘোষণা রাজভবনের, কারা পেল এই পুরস্কার, দেখুন

রিপোর্টে ভরসা নেই, অশান্তির খবর নিতে গ্রাউন্ড জিরো-তে যেতে চান রাজ্যপাল, উত্তরবঙ্গে যখন ভোট প্রচারে ব্যস্ত মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, তখন সেই উত্তরবঙ্গে গিয়ে রাজ্যপাল বললেন, মানুষের সঙ্গে কথা বলে অশান্তির পরিস্থিতি সম্পর্কে জানতে চান তিনি। তাঁর কাছে যে রিপোর্ট যাচ্ছে, তা সম্পূর্ণ সত্য নয় বলেই মনে করেন তিনি। তাই পদক্ষেপ করার জন্য নিজে সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে চান রাজ্যপাল সি ভি আনন্দ বোস। দু দিনের সফরে সোমবার উত্তরবঙ্গে গিয়েছেন তিনি। শিলিগুড়ি যাওয়ার আগে আচমকাই উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়েও যান তিনি। আগামী ২৭ জুন উপাচার্যদের নিয়ে সেখানে বৈঠকে বসবেন রাজ্যপাল।

 

 

 

 

এই সফরে দার্জিলিং রাজভবনে থাকবেন তিনি। ভোটের আগে কেন এই উত্তরবঙ্গ সফর? সেই প্রশ্নের উত্তরে রাজ্যপাল বলেন, “অনেক জায়গায় অশান্তি, হিংসার ঘটনা ঘটছে। সে সব বিষয়ে জানতে আমি গ্রাউন্ড জিরো-তে যেতে চাই। যাঁরা আক্রান্ত হচ্ছেন, তাঁদের সঙ্গে কথা বললে তবেই আসল পরিস্থিতি বোঝা যাবে।”

 

 

 

এদিকে, এই সফরেই তিনি তাঁর নিয়োগ করা উপাচার্যদের সঙ্গে বৈঠক করবেন উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে। ২৭ জুন সেই বৈঠক হওয়ার কথা। তার আগে সোমবার আচমকাই তিনি পৌঁছে যান উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে। সেখানে তাঁকে বৈঠক নিয়ে প্রশ্ন করা হলে রাজ্যপাল বলেন, ‘আগে মিটিংটা হতে দিন, তারপর জানা যাবে কী নিয়ে আলোচনা হল।’ এই উপাচার্য নিয়েই রাজ্য-রাজ্যপাল দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে আসে। তবে উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে এদিন জানানো হয়েছে, সব উপাচার্যরাই থাকবেন বৈঠকে।

 

 

 

আরও পড়ুন –নতুন সরকার আসছে, একটু ধৈর্য ধরুন, কিসের ইঙ্গিত দিলেন মুখ্যমন্ত্রী ?

 

 

 

রাজ্যপাল উল্লেখ করেন, ঘটনাস্থলে না গেলে সবটা জানতে কেবলমাত্র রিপোর্টের ওপরেই নির্ভর করতে হবে। আর তাঁর কাছে যে রিপোর্ট আসছে, তা ফিল্টার করা বা ছেঁকে নেওয়া বলে মনে করেন তিনি। অর্থাৎ ওই রিপোর্টে সম্পূর্ণ তথ্য নেই বলেই তাঁর মত। তিনি আরও বলেন, ‘ভোটের আগে অভিযোগ, পাল্টা অভিযোগ সামনে আসবে। আসল তথ্য জানলে তবেই পরবর্তী পদক্ষেপ করতে সুবিধা হবে।’