মন্দারমনিতে গিয়ে হোটেলে ওঠার আগে সাবধান! বড় পদক্ষেপ নিল প্রশাসন

মন্দারমনিতে গিয়ে হোটেলে ওঠার আগে সাবধান! বড় পদক্ষেপ নিল প্রশাসন, এই মুহূর্তে বাঙালির অন্যতম পর্যটনস্থল মন্দারমনি। কোলাহল থেকে অল্প দূরে সমুদ্রের সৌন্দর্য্য চাক্ষুষ করার জন্যই অনেকেই ভিড় জমান এই সমুদ্র সৈকতে। আর পর্যটকদের আগ্রহের সঙ্গে সঙ্গে বেড়েছে হোটেল, হোম স্টের চাহিদাও। এই সুযোগেই মাথা চাড়া দিয়ে উঠছে অবৈধ নির্মাণ?

 

 

 

 

 

 

মন্দারমনি বিচ (Mandarmani Beach) হোটেলিয়ার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সন্দীপন বিশ্বাস বলেন, “এটা পুরুষোত্তমপুরের দিকে ঘটেছে। ওরা আমাদের সঙ্গে যুক্ত নয়। এই ঘটনার পর গ্রামবাসীরা বাধা দেয়। পরে তারা জানায় নিজেরাই এই নির্মাণ ভেঙে দেবে। ওদের সঙ্গে আমাদের কোনও যোগাযোগ নেই।” তিনি আরও বলেন, “ওখানে যে হোম স্টে বা হোটেল তৈরি হয়েছে সেগুলো নতুন। এই নতুনগুলি প্রশাসন ভাঙলে আমাদের বলার কিছু নেই। কিন্তু, পুরনোগুলি ভাঙলে সমস্যা হবে। আমাদের সমস্ত বৈধ কাগজ রয়েছে। তবে রিনিউয়াল না হলে সেটা আমাদের সমস্যা নয়।”

 

 

 

 

জানা গিয়েছে, মন্দারমনি (Mandarmani) সংলগ্ন পুরুষোত্তমপুরে সমুদ্র উপকূলে অবৈধভাবে হোম স্টে তৈরি করার ঘটনা নজরে আসে প্রশাসনের। এরপরেই তড়িঘড়ি নেওয়া হয় পদক্ষেপও। জানা গিয়েছে, কাঁথির প্রশাসন সমুদ্র উপকূলে গড়ে ওঠা এই অবৈধ নির্মাণগুলি ভেঙে ফেলার নির্দেশ দিয়েছিলেন। এই নির্দেশের পরেই তৎপর হয় দিঘা-শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদ।

 

 

 

 

 

আরও পড়ুন –   আরব সাগরের বিষাক্ত সাপের দেখা মিলল দিঘার সমুদ্র সৈকতে

 

 

 

 

মোট চারটি অবৈধ নির্মাণ ভেঙে ফেলার জন্য তৎপরতা নেওয়া হয়। মন্দারমনি পুলিশের (Mandarmani Police) সাহায্যে এই অবৈধ নির্মাণ ভাঙতে গেলেও বিক্ষোভ দেখান স্থানীয়রা। এমনকী, বুলডোজার আটকে দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ ওঠে। বাধাদানকে কেন্দ্র করে উত্তাল হয়ে ওঠে পরিস্থিতি। যদিও পরবর্তীতে স্থানীয়রা আশ্বাস দেন, এই বেআইনি নির্মাণ তাঁরাই ভেঙে ফেলবেন। এরপর পুলিশ সেখান থেকে ফিরে আসে।

 

( সব খবর, ঠিক খবর , প্রত্যেক মুহূর্তে ফলো করুন Facebook পেজ এবং Youtube )