ইডির তদন্ত নিয়ে প্রশ্ন শুনেই সায়নীর উত্তর ‘আপনাদের বলব না’,

ইডির তদন্ত নিয়ে প্রশ্ন শুনেই সায়নীর উত্তর ‘আপনাদের বলব না’, ৩০ জুন ইডির (ED) দফতর থেকে বেরিয়ে বলেছিলেন ফের তাঁকে ডাকবেন তদন্তকারীরা। যতবারই ডাকবে ততবারই তিনি আসবেন। সাফ বলেছিলেন, তদন্তেও একশো শতাংশ সহযোগিতা করছেন। যাঁরা চোর তাঁরা পালাবে। তাঁর থেকে ব্যাঙ্ক, আয়কর সংক্রান্ত যে নথিগুলি চাওয়া হয়েছিল সেগুলিরও বেশ কিছু তিনি জমা দিয়ে এসেছেন সিজিও কমপ্লেক্সে। এরইমধ্যে গত ৫ জুলাই নিয়োগ দুর্নীতিকাণ্ডের তদন্তে ফের তাঁকে তলব করে এনফোর্সমেন্ট ডাইরেক্টরেট। কিন্তু, আর হাজিরা দেননি তৃণমূলের যুবনেত্রী সায়নী ঘোষ (Saayoni Ghosh)। পঞ্চায়েত ভোটের (Panchayat Election 2023) প্রচারে ব্যস্ত রয়েছেন তিনি। ১১ জুলাই ভোটের ফল প্রকাশের পর তাঁকে ডাকলে যাবেন বলে মেইলে জানিয়ে দেন তিনি। এরইমধ্যে ফের তাঁকে ইডি নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তা এড়িয়ে গেলেন তিনি।

 

 

 

 

 

 

বুধবার ইডির দফতরে হাজিরা না দিয়ে পূর্ব বর্ধমানের গলসিতে ভোট প্রচারে গিয়েছিলেন তিনি। ওইদিন যদিও সিজিও কমপ্লক্সে গিয়ে তাঁর এক এজেন্ট বেশ কিছু নথি জমা দিয়ে এসেছে বলে খবর। তবে ইডির তরফে যে সমস্ত নথি চাওয়া হয়েছিল সেগুলির সব এখনও পর্যন্ত ইডির হাতে আসেনি বলে খবর। অসম্পূর্ণ অবস্থায় রয়েছে সেই নথিগুলি। এদিন এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে রীতিমতো ক্ষোভে ফেটে পড়েন সায়নী। বলেন, “এটা কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার বিষয়, আমি বুঝে নেব।” এমনকী তাঁর বয়ানেও বেশ কিছু অসঙ্গতি রয়েছে বলে ইডি সূত্রে খবর। প্রসঙ্গত, নিয়োগ দুর্নীতিতে অভিযুক্ত কুন্তল ঘোষের রেশ ধরেই সায়নীকে ডেকে ছিল ইডি। এখন সায়নীর কাছ থেকে এই কুন্তলের বিষয়ে আরও তথ্য পেতে চাইছেন তদন্তকারীরা।

 

 

 

আরও পড়ুন –   পান্ডুয়ায় অভিষেকের রোড শো-তে কালো কাপড় দেখানোর ঘটনায় অবশেষে গ্রেফতার আফতাব,

 

 

 

এদিন কাটোয়ার অগ্রদ্বীপে ভোট প্রচারে এসেছিলেন তিনি। সেখানে তাঁকে ইডির তদন্ত নিয়ে প্রশ্ন করা হলে খানিক রেগে গিয়ে তিনি বলেন, ‘যা বলার ইডিকে বলব। আপনাদের বলব না।’ এদিকে বিরোধীদের দাবি, গ্রেফতারি এড়াতেই ইডির জেরা এড়িয়ে গিয়েছেন সায়নী। যদিও অগ্রদ্বীপে প্রচারে বিরোধীদের তীব্র কটাক্ষ করে তিনি বলেন, ‘বিরোধী বলে তো কিছুই নেই। ভিড় দেখে বুঝতে পারছেন না!’